ভাঙ্গায় বেদে পল্লীতে ত্রাণ সহায়তা নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আজিম উদ্দিন

ফরিদপুর সংবাদ ভাঙ্গা

সোহাগ মাতুব্বর, ফরিদপুর প্রতিনিধি: যাদের কোন ঘর নেই বাড়ি নেই যেখানে সুযোগ সেখানেই বাঁধেন সংসার এই যাযাবর গোষ্ঠীদের আমরা বেধে সম্প্রদায় বলে জানি। আর এই করোনা মহামারীতে সবচেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের মধ্যে তারা অন্যতম।

যখন জীবন জীবিকা নির্বাহ করা দুঃসাধ্য ব্যাপার হয়ে উঠেছে ঠিক তখন ত্রাণ কর্তা হিসাবে হাজির হয়েছেন ভাঙ্গা উপজেলা  নির্বাহী অফিসার মোঃ আজিম উদ্দিন।

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় ৪৫ টি বেধে সম্প্রদায়ের পরিবার কে ১০ কেজি করে চাল প্রদান করা হয়।

বেধে পল্লীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আজিম উদ্দিন

উল্লেখ্য বেদে সম্প্রদায়ের লোকজন মূলত সাপের খেলা, গ্রামীন চিকিৎসা দিয়ে ও সোনা খোঁজার কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন। এই করোনা ভাইরাস এর কারনে লকডাউন দেওয়ার কারনে তাদের সব কর্ম বন্ধ হয়ে গেছে।

ভাঙ্গা উপজেলার আলগী ইউনিয়নের শুয়াদী গ্রামে ৪৫ টি পরিবারের বেধে সম্প্রদায়ের বসবাস। এই সম্প্রদায় কে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আজিম উদ্দিন।প্রতিটি পরিবার কে দেওয়া হয় চাল। এই সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান এস.এম হাবিবুর রহমান, উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ব্যারিস্টার সজীব আহমেদ, দিলশাদুল হক শিমুল প্রমুখ।

এই বিষয়ে বেধে সম্প্রদায়ের প্রধান আমাদের কে বলেন, করোনা আর লকডাউনের কারনে যখন দু বেলা পেট ভরে (পুরে) ভাত খাইবার (খাওয়ার) মতোন অবস্থা আছিল না। তহন স্যার (উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আজিম উদ্দিন) আইসে আমাকে চাল  দিছে। বাজান এই সময় আমাগো সাহায্য হরায় (করায়) আমাগো মেলা উপকার হয়েছে আল্লাহ্ স্যারের মঙ্গল করুক।

এই বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আজিম উদ্দিন বলেন, লকডাউন এর কারনে বেধে সম্প্রদায়ের জীবন যাপন খুবই খারাপ অবস্থা, তাই তাদের কে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৪৫ টি পরিবারের মধ্যে প্রতিটি পরিবার কে ১০ কেজি চাল দেওয়া হয়েছে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *